ব্রেকিংঃ

নদী ভাঙ্গন এলাকা ভোলায় জনগনের দুঃখ দুর্দশা দেখতে পানি সম্পদ প্রতিমন্ত্রী।।

এম রহমান রুবেল।।

বর্ষার মৌসুমে ভোলা সহ বিভিন্ন এলাকায় শুরু হয় নদী ভাঙ্গন।

আর তারই ধারাবাহিকতায় এ বছরও নদী ভাঙ্গণের প্রকোপ বাড়ছে।

তাই মানুষের দুঃখ দুর্দশা স্বচক্ষে দেখার জন্য করোনা থেকে সুস্থ্য হয়েই মাঠে নেমে পড়েছেন পানি সম্পদ প্রতিমন্ত্রী কর্নেল (অবঃ) জাহিদ ফারুক শামীম এমপি।

আজ (৫ সেপ্টেম্বর ) শুক্রবার ভোলা সদর উপজেলার বাপাউবোর চলমান প্রকল্প ও মেঘনা নদীর ভাঙ্গনপ্রবন ইলিশা, কাচিয়া,ধনিয়া, শিবপুর ভাঙন প্রতিরোধের কার্যক্রম ও মেঘনা, তেতুলিয়া নদীর ভাঙন কবলিত এলাকা পরিদর্শন করেন মন্ত্রী।

এসময়ে তিনি ক্ষততিগ্রস্থ এলাকা পরিদর্শন করেন বলেন,বাংলাদেশে জলবায়ু পরিবর্তনের কারনে বৈশ্বিক আবওয়া পরিবর্তন হয়েছে এবং কোথায় কোথায় ঝড়, বন্যা জলোচ্ছাস দেখা গেছে।
তিনি বলেন, ভোলাটা পুরো নদী বেস্টিত এলাকা। ভোলাতে অনেক প্রকল্প আছে।
ভোলার ধনিয়া, শিবপুর ৪.৫ কিলোমিটার আরেকটি প্রকল্প চলমান এটা হলে পুরো ভোলার শহরটা সু রক্ষিত রাখা যাবে।

মন্ত্রী বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী সবসময় জনগণের ভাগ্য উন্নয়নে কাজ করছেন।

তিনি বর্তমানে নদী ভাঙ্গন প্রতিরোধে ব্যপক পরিকল্পনা গ্রহণ করেছেন।

আমরা সেই অনুসারে নদী ভাঙ্গন রোধে মাঠে রয়েছি। ইতিমধ্যে অনেক স্থানে ভাঙ্গন রোধ করা সম্ভব হয়েছে। বাকিসব স্থানে কাজ প্রক্রিয়াধীন।