ব্রেকিংঃ

ভোলায় জমকালো অনুষ্টানে ছাত্রলীগের ৭৩তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত।।

এম রহমান রুবেল ॥ভোলায় হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের হাতে গড়া সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগ এর ৭৩ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন করা হয়েছে। সোমবার সকাল ১১টার সময় জাতীয় পতাকা উত্তোলনের মাধ্যমে কেক কাটা আলোচনা সভা ও র‌্যালীর মাধ্যমে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন করে ভোলা জেলা ছাত্রলীগ নেতৃবৃন্দরা।

“সেলিম, দেলোয়ার, তিতাস ছাত্রলীগের ইতিহাস; পদ্মা-মেঘনা-যমুনা তোমার আমার ঠিকানা” “বই-খাতা-কলম নিন, ছাত্রলীগে যোগদিন” এ স্লোগানকে সামনে রেখে বাংলাদেশ কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের নির্দেশনায় ভোলা জেলা ছাত্রলীগ জমকালো অনুষ্ঠানের মাধ্যমে হাজারো নেতা-কর্মীর উপস্থিতে দলীয় কার্যালয়ে সোমবার সকাল ১১ টার সময় জাতীয় পতাকা উত্তোলনের মাধ্যমে কেক কাটা আলোচনা সভা ও র‌্যালীর মাধ্যমে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন করা হয়। দলীয় কার্যালয়ের সামনে বিভিন্ন ইউনিয়ন থেকে আসা ইউনিয়ন ছাত্রলীগের নেতা-কর্মী একত্রিত হয়ে শহর প্রদক্ষিণ করার সময় মুখরিত করে জয় বাংলার স্লোগানে এবং পরে দলীয় কার্যালয়ে এসে র‌্যালিটি শেষ হয়।
এসময় জেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি মোঃ তৈবুর রহমান এর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সাবেক জেলা ছাত্রলীগ নেতা ও বর্তমান জেলা আ’লীগের ১নং সিনিয়র যুগ্ম সাধারন সম্পাদক, কাচিয়া ইউনিয়নের জনপ্রিয় চেয়ারম্যান জহুরুল ইসলাম নকিব। এ সময় উপস্থিত ছিলেন জেলা আ’লীগের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক এনামুল হক আরজু, প্রচার সম্পাদক ও বাপ্তা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ইয়ানুর রহমান বিপ্লব মোল্লা, সাবেক ছাত্রলীগ নেতা ও জেলা আ’লীগের কোষাধ্যক্ষ মোঃ জসিম উদ্দিন, উপজেলা আ’লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ আজিজুল ইসলাম, সাবেক ছাত্রলীগ নেতা ও ভোলা পৌরসভার ৩নং ওয়ার্ডের কাউন্সির ছালাউদ্দিন লিংকন, সাবেক জেলা ছাত্রলীগ সম্পাদক মোঃ রিয়াজ, সাবেক ছাত্রলীগ নেতা ও পৌর আ’লীগ সাধারন সম্পাদক শাহ আলী নেওয়াজ পলাশ, মোঃ ইভান, মিজানুর রহমান, সাবেক ছাত্রলীগ নেতা ও জেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক আবিদুল আলম, জেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক মুজাহিদুল ইসলাম তুহিন, সাবেক ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক আকতার হোসেন, বেলায়েত হোসেন, কাজি আরিফ হোসেন, সাবেক উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি মাহামুদুল হাসান ফাহাদ, সাংগঠনিক সম্পাদক ও জেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগ সদস্য এম রহমান রুবেল, সাবেক ছাত্রলীগ নেতা জনি, নীলয় প্রমুখ। এছাড়াও আরো উপস্থিত জেলা ছাত্রলীগের পদ পদবী লভিং করা ছাত্রলীগ নেতা রাহায়ন, হিমেল, নেওয়াজ শরিফ কুতুব, অমিসহ আরো বেশ কিছু ছাত্রলীগ নেত-কর্মীরা।
প্রধান অতিথি জহুরুল ইসলাম নকিব বলেন, বাংলাদেশ ছাত্রলীগ ঐতিহ্যবাহি ছাত্র সংগঠন সুতরাং এই সংগঠন আমরাও এক সময়ে করেছি। আমাদের সময়ের ছাত্রলীগ ছিল খুব পরিছন্ন। তাই তোমরা এই সংগঠনকে পরিছন্ন রাখতে মাদককে না বলে যুব সমাজকে আলোকিত করতে কাজ করে যাও, তবে তোমাদের ভবিষৎ ভালো হবে। দেশের যে কোন ক্রান্তিলগ্নে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ সব সময় দেশ ও দশের পাশে ছিলো এবং পূর্বের ন্যায় ভবিষ্যতেও ঝাপিয়ে পরবে বলে আশা প্রকাশ করছি।