ব্রেকিংঃ

ভোলার বাপ্তায় ২শ’ জনের মাঝে ভাতার কার্ড বিতরণ।।

এম রহমান রুবেল ॥ করোনা মহামারি ভাইরাস এর ভিতরেও থেমে নেই ভোলার বাপ্তা ইউনিয়ন পরিষদের সেবা কার্যক্রম। তারই ধারাবাহিকতায় বাপ্তায় ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ে অসহায় দুস্থ, বয়স্ক, বিধবা, প্রতিবন্ধি ২শ’ জন ভাতাভোগিদের মাঝে ভাতার কার্ড বিতরণ করা হয়েছে। এছাড়াও চেয়ারম্যান এর নিজ খামার থেকে ১ হাজার কেজি পেয়াজ জনপ্রতি প্রত্যেককে ৫ কেজি করে প্রদান করেন।
ভাতার কার্ড ও পেয়াজ বিতরণ করেন বাপ্তা ইউনিয়ন পরিষদ থেকে একাধিকবার নির্বাচিত সফল ও স্বার্থক জনপ্রিয় জনপ্রতিনিধি ও জেলা আ’লীগের প্রচার সম্পাদক ইয়ানুর রহমান বিপ্লব মোল্লা। এসময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা সমাজ সেবা কার্যালয়ের কর্মকর্তা শেখর বাবু, বাপ্তা ইউনিয়ন পরিষদের সচিব শ্যামলসহ ইউপি সদস্যবৃন্দরা।
পরিষদে ভাতার কার্ড ভোগিদের উদ্দশ্যে তার গুরুত্বপূর্ণ বক্তব্যে চেয়ারম্যান ইয়ানুর রহমান বিপ্লব মোল্লা বলেন, সকলে যখন নিরাপদ আশ্রয়স্থল হিসেবে বাড়িতে বসবাস করছেন, ঠিক তখনই মানুষের জনসমাগমের মধ্যে মিশে আমরা আমাদের জীবনের ঝুঁকি নিয়ে জননেতা তোফায়েল আহমেদ এমপি মহোদয়ের নির্দেশে আপনাদের দ্বারে দ্বারে সরকারের সকল সহযোগিতা পৌঁছে দেওয়ার চেষ্টা করছি।
তিনি আরো বলেন, আমরা আজকে বয়স্ক, বিধবা, প্রতিবন্ধী ভাতার কার্ড বিতরণ করেছি। প্রত্যেকটি পরিবার ১১ হাজার ৫শ’ টাকা করে পাবে এবং কেউ কেউ ৭ হাজার ৫শ’ টাকা করে ঈদের আগে পাবেন। ঈদ উপলক্ষে বাপ্তা ইউনিয়ন পরিষদের পক্ষ থেকে ৩ হাজার ৫ শত পরিবারের মাঝে ঈদ ভিজিএফ বিতরণ করবো। আপনারা দোয়া করবেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা ও ভোলার অভিভাবক জননেতা তোফায়েল আহমেদ এমপি মহোদয়ের জন্য। আমাদের নেতা ভোলার প্রত্যেকটি জনগনের খবরা খবর রাখছেন।
বিপ্লব বলেন, আমাদের সাড়ে ১ হাজার ৪শ’ বয়স্ক, বিধবা, প্রতিবন্ধি ভাতার কার্ড অনুমোদন হয়েছে। আমরা এগুলো হাতে পেলে পরিষদ থেকে ভাতাভোগিদের মাঝে তা বিতরণ করবো। আমরা সরকারের এই উন্নয়ন ও সেবামূলক কাজে মানুষকে সেবা দেওয়ার জন্য কোন বিনিময় চাই না। আমাদের বঙ্গবন্ধু কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর জননেত্রী শেখ হাসিনাও কোন বিনিময় চান না। বঙ্গবন্ধুর আদর্শের স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়তে চান জননেত্রী শেখ হাসিনা।
তিনি আরো বলেন, আমাদের নেতা তোফায়েল আহমেদ এমপি এই ভোলার মানুষদের নিয়ে হাঁসি-খুশিতে স্বচ্ছল ও সুন্দর জীবন যাপনের পরিবেশ তৈরি করতে চান। আমরা তার প্রতিনিধি হয়ে প্রত্যেক ইউনিয়নে কাজ করে যাচ্ছি। পরিশেষে তিনি দেশবাসী, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও ভোলার অভিভাবক জননেতা তোফায়েল আহমেদ এমপি এবং তার মরহুম বাবা, মাসহ ইউনিয়ন পরিষদের সকল সদস্যর জন্য দোয়া কামনা করেন।