ব্রেকিংঃ

উত্তেজিত জনতাকে শান্ত করে যানবাহন চলাচল স্বাভাবিক ঘোষনা পলাতক আসামি আটকের নির্দেশ অতিরিক্ত পুলিশ সুপারের।।

স্টাফ রিপোটার।।

ভোলা সদর উপজেলায় যাত্রীবাহী বাসচাপায় দুই অটোরিক্সার তিন যাত্রী নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আরও পাচঁ যাত্রী আহত হয়েছেন। তাদের উদ্ধার করে ভোলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এদের মধ্যে দুজনের অবস্থা গুরুতর হওয়ায় উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশাল শের- ই – বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরন করা হয়েছে।এ ঘটনায় বিক্ষুদ্ধ জনতা ভোলা-চরফ্যাশন আঞ্চলিক মহাসড়ক অবরোধ করলে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনেন ভোলা জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ আবুল কালাম আজাদ।

বৃহস্পতিবার (২৭ মে) দুপুর ২টার দিকে ভোলা-চরফ্যাশন আঞ্চলিক মহাসড়কের ঘূইংগারহাট নামক এলাকায় এ দূর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন-সোহাগ (৩৫), আজিজ (৩০) ও সিরাজ (২৫)। তারা সদরেরর কমরদ্দি ও উত্তর দিঘলদী ইউনিয়নের বাসিন্দা। আহতদের ভোলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

স্থানীয়রা জানান, ভোলা থেকে চরফ্যাশনগামী একটি বাস(বিসমিল্লাহ পরিবহন) ও বিপরীত দিক থেকে আসা দুটি অটোরিক্সাকে চাপা দিলে ঘটনাস্থলেই দুই অটোরিক্সার তিন যাত্রীর মৃত্যু হয়। এসময় আরো পাচঁযাত্রী আহত হয়েছেন। আহতদের স্থানীয় ও ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা উদ্ধার করে ভোলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন। এ ঘটনায় বিক্ষুদ্ধ জনতা ভোলা-চরফ্যাশন আঞ্চলিক মহাসড়ক অবরোধ করে রেখেছেন। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে সেখানে পুলিশ মোতায়েন করা রয়েছে। ফায়ার সার্ভিসের একটি টিম ঘটনাস্থলে গিয়ে উদ্ধার কাজ করেন।

ভোলা জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ আবুল কালাম আজাদ বলেন, খবর পেয়ে আমি ঘটনাস্থলে গিয়েছি।
বাসটিকে আটক করে পরিস্থিতি স্বাভাবিক করেছি। উত্তেজিত মানুুষেকে শান্ত করে যানবাহন চলাচল স্বাভাবিক করেছি।

তিনি আরো বলেন, দূর্ঘটনার পর চালক পালিয়ে যাওয়ায় তাকে আটক করা যায়নি।পলাতক বাস চালককে আটকের চেষ্টা চলছে। দ্রুত তাকে আইনের আওতায় আনা হবে।

সদর মডেল থানার অফিসার ইন-চার্জ (ওসি) মোঃ এনায়েত হোসেন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন।