ব্রেকিংঃ

পূর্ব ইলিশায় তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে কৃষকের স্ত্রীকে পিটিয়ে রক্তাক্ত।।

স্টাফ রিপোটার।।

পূর্ব ইলিশা ইউনিয়নের গুপ্তমুন্সি ৮ নং ওয়াডের পন্ডিত বাড়ির সামনে বাড়ির গাঁছ উগলিয়ে ফেলায় বাঁধা দেওয়ায় কৃষক জাকির এর স্ত্রীকে লাটি দিয়ে পিটিয়ে রক্তাক্ত ও জমখ করার অভিযোগ পাওয়া গেছে স্থানীয় জহিরের ছেলে হারুন ও ফারুক গংদের বিরুদ্ধে।
ঘটনাটি ঘটেছে রবিবার দুপুর আনুমানিক ২.০০ টার সময় অভিযোকারির বাসার সামনে।

আহত বিবি রহিমা বেগম এর ডাক চিৎকার শুনে স্থানীয় লোকজন দৌড়ে এসে তাকে উদ্ধার করে ভোলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়েছে।
আহত রহিমা বেগম গাহিনী ৬৫ নং বেডে চিকিৎসা সেবায় আছেন।

আহত রহিমা বেগম জানান,আজ দুপুরে আমার বাড়ির সামনে ফলের গাছ উঠিয়ে ফেলায় আমি গালমন্দ করে বাধা দিলে হারুন ও ফারুক দুই ভাই দৌড়ে এসে আমার বাড়ির ভিতরে এসে লাঠি দিয়ে আমাকে মেরে রক্তাক্ত ও জখম করে মাঠিতে ফেলে দেয় তখন আমার ডাক চিৎকার শুনে স্থানীয়রা দৌড়ে আসলে হারুনেরা পালিয়ে যায়।
পরে আমাকে স্থানীয় কিছু লোকজন হাসপাতালে নিয়ে আসে। ঘটনা শুনে আমার স্বামী আমাকে দেখতে হাসপাতালে ছুটে আসেন।
আহত রহিমা বলেন স্যার আমার কেউ নেই ওরা অনেক শক্তিশালী আমাকে মেরে ফেলতো আজকে যদি এলাকার লোকজন না দেখতো।

আমি আসামীদের উপযুক্ত বিচার চাই ওদের বিচার না করলে ওরা মানুষ কে মানুষ মনে করে না।

এবিষয়ে প্রশাসন সহ কাউকে জানাইলে এলাকা ছাড়া করে দিবে বলে হুমকি দিচ্ছে আমাদেরকে।
বর্তমানে অসহায় পরিবারটি  আতঙ্কের মধ্যে  রয়েছে।
তারা স্থানীয় গন্যমান্য ব্যক্তিসহ প্রশাসনের সহযোগিতা কামনা করছেন।
অভিযুক্তকারিদের সাথে একাদিকবার যোগাযোগ করার চেস্টা করা হলে তাদের কে পাওয়া যায় নাই।
এব্যাপারে আহতোর স্বামী জাকির জানান আমি মামলা দায়েরের প্রস্তুতিতে আছি।

এবিষয় দুঃখপ্রকাশ করেছেন স্থানীয় ৮ নং ওয়াডের মেম্বার রহমান।