ব্রেকিংঃ

বিএনপি যখনই সুযোগ পেয়েছে ঠিক তখনই আওয়ামী লীগের উপর অত্যাচার নির্যাতন জুলুম করেছে”তোফায়েল আহমেদ।।

এম রহমান রুবেল।।

আওয়ামীলীগের উপদেষ্টা মন্ডলীর সদস্য, ৬৯ এর মহানায়ক বঙ্গবন্ধুর রাজনৈতিক সচিব তোফায়েল আহমেদ এমপি বলেছেন, আওয়ামী লীগ প্রায় ১৪ বছর রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় রয়েছে।

এই ১৪ বছরে বিএনপির উপর কোন জুলুম করা হয় নাই।
কিন্তু বিএনপি যখনই সুযোগ পেয়েছে ঠিক তখনই আওয়ামী লীগের উপর অত্যাচার নির্যাতন জুলুম করেছে।

বঙ্গবন্ধু কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা আজ গ্রাম কে শহরে রুপান্তরিত করেছেন তা আজ বাংলাদেশের প্রতিটি মানুষের কাছে দৃশ্যমান।

রবিবার (০ ২ অক্টোবর ) বিকাল ৫ ঘটিকার সময় কাচিয়া ইউনিয়নের পরানগঞ্জ বাজারের মাদ্রসা মাঠে ইউনিয়ন আ’লীগের আয়োজনে জনসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তোফায়েল আহমেদ এসব কথা বলেন।

সাবেক মন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ এমপি বলেন, রাজনীতি মানে এই নয় যে প্রতিহিংশার রাজনীতিতে লিপ্ত হতে হবে।
আওয়ামীলীগ সরকার এই অপরাজনীতি বিশ্বাস করেনা।
বিএনপি আ’লীগ সরকার কে বিদায় করবে।
আওয়ামী লীগ সরকার কে বিদায় করা ওত সহজ নয়।
আওয়ামী লীগ দ্বারাই বার বার বিদায় নিতে হয়েছে বিএনপিকে।

তিনি আরো বলেন, বিএনপি কথায় কথায় বিবৃতি দিবে আর আওয়ামীলীগ সরকার দেশ উন্নয়ন নিয়ে ব্যস্ত সময় পার করছে।

তিনি আরো বলেন, সকলে ঐক্যবদ্ধ থাকলে কেউ দলের কোন ক্ষতি করতে পারবেনা।
প্রত্যেক ইউনিয়ন ও ওয়ার্ডে শক্তিশালী আওয়ামী লীগ গড়ে তুলতে হবে এবং আওয়ামী লীগ কে শক্তিশালী করে তুলতে হবে।
যাতে ডাক দিলে হাজার-হাজার নেতা কর্মী ও জনগন উপস্থিত হয়।

তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধুু কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভালোভাবে দেশকে পরিচালিত করছেন।

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা দীর্ঘায়ু কামনা চেয়ে সকলের কাছে দোয়া চেয়েছেন।

তিনি গ্রামকে শহরে রুপান্তর করেছেন। আওয়ামী লীগ সরকারের আমলে মানুষ খুবই শান্তিতে আছে তারা আজ অনেক খুশি।

তোফায়েল আহমেদ আরো বলেন, আমি ভোলা কে আল্লাহর রহমতে নদী ভাঙ্গার হ্ত থেকে রক্ষা করতে পেরেছি। এখন আমার শেষ স্বপ্ন ভোলা কে বরিশাল এর সাথে সংযুক্ত করা আল্লাহর রহমতে সেই আশা ও আমার পূরন হবে ইনশাআল্লাহ। আমি ভোলা বরিশাল সেতু করেই ছাড়বো আল্লাহ যদি আমাকে সুস্থ ভাবে বাচিয়ে রাখেন।

কাচিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মীর আমির হোসেন মাস্টারের সভাপতিত্বে ও উপজেলা আ’লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আজিজুল ইসলাম এর সঞ্চালনায় সভায় বক্তব্য রাখেন জেলা আ’লীগের সিনিয়র সহ সভাপতি ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আব্দুল মমিন টুলু’,জেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক মইনুল হোসেন বিপ্লব,জেলা আ’লীগের সাবেক যুগ্ন সাধারন সম্পাদক জহুরুল ইসলাম নকিব, উপজেলা আ’লীগের সাধারন সম্পাদক নজুরুল ইসলাম গোলদার প্রমুখ।

এসময় উপস্থিত ছিলেন, জেলা আ’লীগের সাবেক সহ সভাপতি এডভোকেট আশ্রাফ হোসেন লাভু , জেলা আ’লীগের যুগ্ন সাধারন সম্পাদক এনমুল হক আরজু,জেলা মুক্তিযুদ্ধা সংসদের ডিপুটি কমান্ডার সফিকুল ইসলাম, জেলা আ’লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মোহাম্মদ ইউনুছ, জেলা আ’লীগের উপ দপ্তর সম্পাদক সামসুদ্দিন,জেলা আ’লীগের উপ প্রচার সম্পাদক বাবু গৌরাঙ্গ চন্দ্র দে,উপজেলা আ’লীগের যুগ্ন সাধারন সিরাজুল ইসলাম,পৌর সভার প্যানেল মেয়র সালাউদ্দিন লিংকন, আসাদুজ্জামান জুম্মুন, জেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি আবু ছায়েম, জেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাবেক যুগ্ন আহ্বায়ক মুজাহিদুল ইসলাম তুহিন, জেলা ছাত্র লীগের সভাপতি রাইহান আহমেদ ও সাধারন সম্পাদক হিমেল মাহমুদ, জেলা কৃষকলীগের সভাপতি মামুন, সাধারণ সম্পাদক শহিদুল ইসলাম সহ স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দরা।